নেপালকে ঢাকার রেল ট্রানজিট নেপালকে ঢাকার রেল ট্রানজিট – দখিন দর্পণ
Image
Sorry, no posts Have .......

মঙ্গলবার  •  ২৮ zzz ১৪২৮ • ১১ মে ২০২১

নেপালকে ঢাকার রেল ট্রানজিট

প্রকাশিতঃ ১১ অগাস্ট ২০২০, মঙ্গলবার, ৫:৫৪ অপরাহ্ন । পঠিত হয়েছে ১০৮ বার।

নেপালকে ঢাকার রেল ট্রানজিট

রেলপথে নেপালকে ট্রানজিট-সুবিধা দিতে নেপালের সাথে থাকা ট্রানজিট চুক্তি সংশোধনের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। গতকাল সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানান। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা এই বৈঠকে যোগ দেন।
মন্ত্রিসভার বৈঠকে দ্বৈত কর পরিহার-রাজস্ব ফাঁকি রোধে আরো দুই দেশের সাথে চুক্তি, কাস্টমস সংক্রান্ত তথ্য আদান-প্রদানে সৌদির সাথে চুক্তি, চলচ্চিত্র শিল্পীদের সহায়তায় ট্রাস্ট গঠনে আইনের খসড়া অনুমোদন, ভাদ্র মাসে বন্যার শঙ্কা নিয়ে বিস্তর আলোচনা এবং করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে মানুষের মধ্যে মাস্ক পরার অভ্যাস গড়ে তুলতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার জন্য মাঠ প্রশাসনকে নির্দেশ দেয়ার বিষয়গুলো উঠে আসে।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বাংলাদেশ ও নেপাল সরকারের মধ্যে স্বাক্ষরের লক্ষ্যে ‘অ্যাডেনডাম টু দ্য প্রটোকল টু দ্য ট্রানজিট অ্যাগ্রিমেন্ট বিটুইন দ্য গভর্নমেন্ট অব দ্য পিপলস রিপাবলিক অব বাংলাদেশ অ্যান্ড দ্য গভর্নমেন্ট অব দ্য ফেডারেল ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অব নেপাল’ এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।
তিনি বলেন, ‘১৯৭৬ সাল থেকে নেপালের সাথে আমাদের দ্বিপক্ষীয় ট্রানজিট অ্যাগ্রিমেন্ট আছে। সেই ট্রানজিট অ্যাগ্রিমেন্টের মধ্যে নেপাল একটি রিকোয়েস্ট করেছে আমাদের রোহনপুর আর ভারতের সিঙ্গাবাদ হয়ে যে রেলপথ আছে সেখানে আরেকটি ট্রানজিট সুবিধা দেয়ার জন্য।’
খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ১৯৭৬ সাল থেকেই এই প্রোটোকলটা আছে, নতুন আরেকটা ওপেনিং হলো। রোহনপুর ও সিঙ্গাবাদ রেলপথের মাধ্যমে তারা মালামাল আনতে ও নিতে পারে সেটা। এই সংশোধনীর প্রস্তাব অনুমোদন পেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জের রোহনপুর থেকে ভারতের সিঙ্গাবাদ হয়ে নেপালের বীরগঞ্জ পর্যন্ত রেলপথে পণ্য পরিবহনসুবিধা চালু হবে।
‘আরেকটা জিনিস এখানে উপস্থাপন করা হয়েছে যে, নেপাল আমাদের সৈয়দপুর এয়ারপোর্ট ব্যবহার করতে চায়। এটা আলোচনা চলছে, আজকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ওইভাবে আর উপস্থাপন করতে পারেনি। যদি এটায় অ্যাগ্রি হয় তাহলে অদূর ভবিষ্যতে সেই প্রস্তাবও এখানে আসবে, আরেকটা অ্যামেন্ডমেন্ট আসবে’ বলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।
তিনি বলেন, ‘আমরা তাদের মংলা বন্দর ব্যবহার করতে দিচ্ছি, চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহার করতে দিচ্ছি। সবগুলো জায়গায় আমরা ওপেন করতে পারিনি। সুবিধা আমরাও পাবো।’
কাস্টমস সংক্রান্ত তথ্য আদান-প্রদানে সৌদির সাথে চুক্তি হচ্ছে : মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে স্বাক্ষরের লক্ষ্যে ‘অ্যাগ্রিমেন্ট বিটুইন দ্য গভর্নমেন্ট অব দ্য কিংডম অব সৌদি অ্যারাবিয়া অ্যান্ড দ্য গভর্নমেন্ট অব পিপলস রিপাবলিক অব বাংলাদেশ অন কো-অপারেশন অ্যান্ড মিউচুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট ইন কাস্টমস ম্যাটারস’ এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। তিনি বলেন, ‘আমাদের সাথে সৌদি আরবের অনেক যোগাযোগ আছে। সেই যোগাযোগের ক্ষেত্রে কাস্টমস একটি বড় ফ্যাক্টর। সে জন্য সৌদি আরবের শুল্ক সংক্রান্ত তথ্য আদান-প্রদান, শুল্ক ফাঁকি রোধে সহযোগিতা করা। কিভাবে বাণিজ্য সহজ করা যায়, যদি আমরা কাস্টমস ডিউটিগুলো ইজি করে ফেলতে পারি।’
খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘এই চুক্তি করলে বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য আরো বাড়বে। দুই দেশের মধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক যোগাযোগ সুসংহত হবে। দুই দেশে অনলাইনে তথ্য আদান-প্রদান করতে পারবে। পণ্যের অবৈধ বাণিজ্য ও চোরাচালান প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাও রাখবে এটা।’
তিনি বলেন, ‘দুই দেশের অর্থনীতি, জনস্বাস্থ্য ও অন্যান্য স্বার্থ রক্ষায় এটা কার্যকর হবে। গোয়েন্দা কার্যক্রমের বিষয়ে দুই দেশ পরস্পরকে সাহায্য করতে পারবে। আমাদের দেশের কাস্টমস বিভাগের দক্ষতা বাড়াতেও সৌদি আরব আমাদের সহায়তা করবে।’
মাস্ক পরা অভ্যাসে পরিণত করতে নামবেন ভ্রাম্যমাণ আদালত : করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে আলোচনা হয়েছে কি না এক সাংবাদিক জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, মানুষকে অন্তত সচেতন থাকতে হবে। এর মধ্যে দেখা গেছে, অনেক মানুষের মধ্যে সচেতনতাটা একটু কমে গেছে, কিন্তু সেটা আরো বৃদ্ধি করতে হবে। কোনো ক্ষেত্রে যদি মোবাইল কোর্ট করা যায়, এগুলো নিয়ে কালকেও সচিব কমিটিকে আলোচনা করে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মাঠ প্রশাসনকে বলে দেয়া হয়েছে প্রয়োজনে আরো এনফোর্সমেন্টে যেতে হবে।
ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, একেবারে ম্যাসিভ কোনো ক্ষেত্রে মোবাইল কোর্ট করার জন্য যদি পানিশমেন্ট দেয়া হয়, এই জিনিসটা প্রচার করার জন্য যে আজকে মাস্ক না পরার জন্য বা সেফটি মেজার্স না নেয়ার জন্য এতগুলো লোককে বাসে বা বাজারে বা লঞ্চে পানিশমেন্ট দেয়া হয়েছে। এগুলো যদি প্রচারে যায়, তাহলে মানুষও সচেতন হবে।
এ ছাড়া আরো বড় আকারে সচেতনতামূলক প্রচারের জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তিনি বলেন, ‘বিশেষ করে তথ্য মন্ত্রণালয়কে আরো ম্যাসিভ প্রচারের জন্য বলা হয়েছে। ফিজিক্যালি মাঠে গিয়ে, মাইক দিয়ে, বিলবোর্ড দিয়ে, যাতে মানুষ আরেকটু সতর্ক হয়। মানুষকে সচেতন হতে হবে।’
ভাদ্র মাসের বন্যা নিয়ে সতর্ক থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর : বন্যা ও পুনর্বাসন নিয়েও মন্ত্রিসভার বৈঠকে আলোচনা হয়েছে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তিনি বলেন, ‘আজকে মন্ত্রিসভা বৈঠকে বন্যা ও পুনর্বাসন কর্মসূচি নিয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে। গত কয়েক দিন থেকে পানি নেমে যাচ্ছে। আজকে যমুনা নদীর পানি বঙ্গবন্ধু সেতুর ওখানে অলরেডি বিপদসীমার বেশ নিচে চলে গেছে।’
পদ্মা নদীর পানির স্তর ও গতি কমে গেছে জানিয়ে খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘ভারতের আবহাওয়া বিভাগের প্রেডিকশন (অনুমান) আছে যে, আগে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা আছে।’
ভাদ্র মাসের মাঝামাঝি যদি কোনো বন্যা আসে তাহলে সেটা কিন্তু লং টাইমে এটা প্রিভেইল (দীর্ঘ মেয়াদে থাকার) করার আশঙ্কা থাকে। সুতরাং আমাদের প্রস্তুতিটা ওইখানে রাখতে হবে।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ ছাড়া আমাদের পুনর্বাসন কার্যক্রম বিশেষ করে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টের আন্ডারে কিছু প্রোগ্রাম আছে, একটা প্রজেক্ট আছে সেই প্রজেক্টে তিনটি কম্পোনেন্টে ইমপ্লিমেন্ট করার কথা আছে। একটা হলো ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট ঘরবাড়ি রিহ্যাবিলিটেশন করবে। আরেকটা হলো স্থানীয় সরকার তাদের ক্ষতিগ্রস্ত অবকাঠামো মেরামত করবে, পানি উন্নয়ন বোর্ডকেও সেখানে ইনক্লুড (অন্তর্ভুক্ত) করা আছে। সেখানে একটা বড় টাকা ধরা আছে যদি কোথাও নদীর বাঁধ ভেঙে যায় ওটাকে তাড়াতাড়ি মেরামত করার জন্য। সে বিষয়ে বিশেষ জোর দেয়া হয়েছে।
চলচ্চিত্রশিল্পীদের সহায়তায় হচ্ছে ট্রাস্ট, আইনের খসড়া অনুমোদন : এ দিকে গতকালের মন্ত্রিসভায় ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট আইন ২০২০’ এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে। পেশাগত কাজ করতে অক্ষম ও অসচ্ছল চলচ্চিত্রশিল্পীদের সহায়তায় এই ট্রাস্ট গঠন করছে সরকার।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘২০১৭ সালের ২৪ জুলাই প্রধানমন্ত্রী জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রশিল্পীদের কল্যাণ সাধনের জন্য বাংলাদেশ চলচ্চিত্রশিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট নামে একটি ট্রাস্ট স্থাপনের জন্য নির্দেশনা দিয়েছিলেন। সেই মোতাবেক তথ্য মন্ত্রণালয় সব ফার্মালিটি শেষ করে এই আইনের খসড়া উপস্থাপন করেছে।’
তিনি বলেন, এই ট্রাস্ট গঠনের মূল উদ্দেশ্য চলচ্চিত্রশিল্পীদের কল্যাণ সাধন করা। আইন করার উদ্দেশ্যে পেশাগত কাজ করতে অক্ষম, অসমর্থ ও অসচ্ছল চলচ্চিত্রশিল্পীকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা।
দ্বৈত কর পরিহার-রাজস্ব ফাঁকি রোধে আরো ২ দেশের সাথে চুক্তি : খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, দ্বৈত করারোপ পরিহার ও রাজস্ব ফাঁকি রোধ মালদ্বীপের সাথে চুক্তি করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আর চেক প্রজাতন্ত্রের সাথে এ সংক্রান্ত করা চুক্তি অনুসমর্থন করেছে মন্ত্রিসভা।
মালদ্বীপের সাথে চুক্তির বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘৩৫-৩৬টি দেশের সাথে আমাদের এরকম দ্বৈত করারোপ রহিতকরণ সংক্রান্ত চুক্তি আছে। এটার জন্য আমাদের পারস্পরিক বিনিয়োগ এবং অর্থনৈতিক সহযোগিতার পথ প্রশস্ত হবে। কারণ, ডুয়েল ট্যাক্সেশন হলে ব্যবসায়ীরা ওপেনআপ করতে চায় না।’
তিনি জানান, ২০১৯ সালের ২২ থেকে ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত ঢাকায় মালদ্বীপের মধ্যে আলোচনা হয়। তখন তারা দ্বৈত করারোপ পরিহার করার লক্ষ্যে চুক্তি করা যায় কি না, তার সিদ্ধান্ত নেয়। এ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি মিটিং হয়েছে। চেক প্রজাতন্ত্রের সাথে চুক্তির বিষয়ে খন্দকার আনোয়ারুল বলেন, ‘অন্যান্য দেশের সাথে যেভাবে দ্বৈত করারোপ পরিহারের বিষয়ে যে চুক্তি আছে সে রকমই চুক্তি। ২০১৯ সালের ১১ ডিসেম্বর দুই দেশের মধ্যে চুক্তি সই হয়েছিল জানিয়ে তিনি বলেন, এখানে নতুন একটি রেটিফিকেশন হয়েছে।’

এ জাতীয় আরো সংবাদ

পহেলা বৈশাখে  হবে ভার্চুয়ালি উদযাপন

পহেলা বৈশাখে হবে ভার্চুয়ালি উদযাপন

প্রকাশিতঃ ৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ১১:৫৩ অপরাহ্ন
অবশেষে পদত্যাগের ঘোষণা আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রীর

অবশেষে পদত্যাগের ঘোষণা আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিতঃ ২৮ মার্চ ২০২১, রবিবার, ১১:৪২ অপরাহ্ন
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটিও আগামী ২২ মে পর্যন্ত

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটিও আগামী ২২ মে পর্যন্ত

প্রকাশিতঃ ২৮ মার্চ ২০২১, রবিবার, ১১:৪১ অপরাহ্ন
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত, আহত শতাধিক

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত, আহত শতাধিক

প্রকাশিতঃ ২৮ মার্চ ২০২১, রবিবার, ১০:৪৯ অপরাহ্ন
ভারতের প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে নিরাপত্তার চাঁদর ঢাকা হয়েছে গোটা সাতক্ষীরা, সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে নিরাপত্তার চাঁদর ঢাকা হয়েছে গোটা...

প্রকাশিতঃ ২৬ মার্চ ২০২১, শুক্রবার, ৭:৫৭ পূর্বাহ্ন
বিকৃত ঘটনায় তোলপাড়, নারীদের খাঁচায় আটকে মেটানো হত লালসা!

বিকৃত ঘটনায় তোলপাড়, নারীদের খাঁচায় আটকে মেটানো হত লালসা!

প্রকাশিতঃ ১৯ মার্চ ২০২১, শুক্রবার, ১০:০৬ অপরাহ্ন

আলজাজিরার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:০৪ পূর্বাহ্ন