শ্যামনগরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ শ্যামনগরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ – দখিন দর্পণ
Image
Sorry, no posts Have .......

সোমবার  •  ১৮ ১৪২৮ • ০২ অগাস্ট ২০২১

শ্যামনগরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১১:৪৩ অপরাহ্ন । পঠিত হয়েছে ২৪৬ বার।

শ্যামনগরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

শ্যামনগর প্রতিনিধি :সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরকারি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে । উপজেলার রমজানগর ইউনিয়নের অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরেজমিনে পরিদর্শন করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গিয়েছে।

সিনিয়র সচিব, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক ৯ আগস্ট ২০২০ তারিখের ভার্চুয়াল সভায় প্রদত্ত নির্দেশনা অনুযায়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংস্কার, সৌন্দর্য বৃদ্ধিসহ বিদ্যালয় কে শিশুদের পাঠদান উপযোগী করার লক্ষ্যে টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। নির্দেশনা মোতাবেক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার কথা বলা হয়েছে । স্লিপ বরাদ্দসহ অন্যান্য সকল বরাদ্দ যথাযথভাবে ব্যয় নিশ্চিত করতে সকল প্রকার মেরামত ও সংস্কার কার্যক্রম যথাযথ মান নিশ্চিত করণ পূর্বক প্রধান শিক্ষক, এইউইও, ইউইও প্রতিবেদন দেবেন।
কোন বিদ্যালয়ে মেরামত ও সংস্কার কাজ বাকি থাকলে তা ৩০ আগস্ট ২০২০ তারিখের মধ্যে অবশ্যই শতভাগ মান সম্মতভাবে সম্পূর্ণ সংস্কার নিশ্চিত করতে হবে। উক্ত তারিখের পর উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ সরেজমিনে পরিদর্শন পূর্বক বাস্তব অবস্থা সরেজমিনে পরিদর্শন করে যাচাই করবেন বলে ওই চিঠিতে উল্লেখ আছে।

রমজানগর ইউনিয়নের ৬১ নাম্বার ভেটখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৭৬ নাম্বার পাতাড়া খোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৭৭ নাম্বার কালীঞ্চি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৯২ নাম্বার মরাগাং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৯৩ নাম্বার নতুন ঘেরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১৭১ নাম্বার ট্যাংরাখালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও গোলাখালী আকবর আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংস্কার কাজ সম্পন্ন না করার অভিযোগ অভিযোগ রয়েছে।


৯৩ নাম্বার নতুন ঘেরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি রাধাপদো মন্ডল বলেন, আমার প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চলমান রয়েছে মিস্ত্রি সংকটের কারণে বাকি কাজ সম্পন্ন করতে পারেনি। ১৭১ নাম্বার টেংরাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম বলেন, আমি মালামাল ইতিমধ্যে এনেছি কিন্তু মিস্ত্রি সংকটের কারণে কাজ শুরু করতে পারেনি। ১৯০ গোলাখালী আকবর আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক (চ.দা.) তুষার কান্তি বিশ্বাস বলেন, আমার স্কুলের কাজ চলমান রয়েছে আমি আপনাদের কাছে কোন বিষয় কৈফিয়ত দেব না। আমি সংশ্লিষ্ট এটিও পরামর্শই কাজ করছি। আমি এটিও মহোদয়ের কাছে জবাবদিহিতা করব। ৭৬ নাম্বার পাতড়াখোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হেমন্তকুমার দেবনাথ বলেন, আমার স্কুলের কাজ চলমান রয়েছে। সভাপতির সাথে কথা বলার জন্য ফোন নাম্বার চাইলেন বলেন সভাপতি আপনার সাথে কথা বলতে চান না।
রমজান নাগরী ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপজেলা সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সোহাগ হোসেন বলেন, মন্ত্রণালয়ের সচিব মহোদয়ের বরাত দিয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আমাদেরকে চিঠির মাধ্যমে জানিয়েছে গত ৩১ আগস্টে ২০২০ মধ্যে কাজ শেষ করার নির্দেশ রয়েছে।আমি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে দুই-একদিনের ভিতরে সরোজমিনে খোজ খবর নেব।যদি তাদের কাজে কোনরকম গাফিলতি থাকে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিষ্ঠানিক ব্যবস্থা গ্রহণ করব। এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের কাছে বারবার মুঠোফোনে ফোন দিয়েও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এ জাতীয় আরো সংবাদ

শ্যামনগরে বৃদ্ধা শ্বাশুড়িকে মারপিটের ঘটনায় দুই পুত্রবধূ ও ছেলে...

প্রকাশিতঃ ৭ ডিসেম্বর ২০২০, সোমবার, ৮:৩১ পূর্বাহ্ন

শ্যামনগরে কৈখালী ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আব্দুর রহিম গুলিবিদ্ধ

প্রকাশিতঃ ১৫ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ৮:৪৮ অপরাহ্ন

শ্যামনগরে দীপাবলির আগুনে পুড়ল ঘর

প্রকাশিতঃ ১৪ নভেম্বর ২০২০, শনিবার, ১১:২৯ অপরাহ্ন

শ্যামনগর শিক্ষা অফিসার আক্তারুজ্জামান মিলনকে ষ্ট্যান্ড রিলিজ

প্রকাশিতঃ ২০ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার, ১০:০৮ অপরাহ্ন

সুন্দরবনে চোরা মেঘনা নদীতে অবৈধ নৌকা আটক

প্রকাশিতঃ ১৬ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ১২:৪২ পূর্বাহ্ন

শ্যামনগরে ৩০০ কোটি টাকার অভিযোগের তদন্ত সম্পন্ন

প্রকাশিতঃ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ন

মান্দারবাড়িয়া সমুদ্র সৈকত : অজানা এক অপূর্ব সৈকত

প্রকাশিতঃ ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ২:০৯ পূর্বাহ্ন